তাশফীকে নিয়ে কী বললেন হামিন ও বাপ্পা? – Prothom Alo

বর্তমান সময়ে বাংলাদেশের গানের জগতের বাসিন্দাদের অনেকেই তাশফীকে চেনেন। জ্যাজ ঘরানার গান গেয়ে তিনি পরিচিতি পেয়েছেন। বছর চারেক ধরে পেশাদার গানের জগতের সঙ্গে আছেন। গত বছর ভারতের সনি মিউজিকের সহযোগী প্রতিষ্ঠান সনি ডিজিটাল অডিও ডিস্ক করপোরেশন (সনি ডিএডিসি) তাঁকে শুভেচ্ছাদূত নির্বাচিত করে। জনপ্রিয় ব্যান্ড মাইলস আর গায়ক ও সংগীত পরিচালক বাপ্পা মজুমদার এ প্রতিষ্ঠানের শুভেচ্ছাদূত।

তাশফী বাংলার পাশাপাশি ইংরেজি, তামিল, হিন্দি, জাপানিজ আর স্প্যানিশ ভাষায় গান করছেন। জানালেন, তাঁর কাছে ভাষার এই পার্থক্যটা খুব ভালো লাগে। এবারই প্রথম মৌলিক গান গেয়েছেন তাশফী। তাশফীর গাওয়া গানের ‘সুর’ ও সংগীত পরিচালনা করেছেন শাহরিন শাহরিয়ার। গানটিতে অতিথিশিল্পী হিসেবে পিয়ানো বাজিয়েছেন রোমেল আলী।

গানের জগতে পরিকল্পনা না করে আসা সংগীতের এই তরুণ সবচেয়ে বেশি অনুপ্রাণিত হয়েছেন বিয়ন্সের গান শুনে। সব সময় গান শুনতেন খুব মন দিয়ে। ২০১৩ সালে যখন বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তেন, তখনো মজা করে গান গাইতেন। এরপর একসময় সিরিয়াস হতে শুরু করেন।

ভারতের সনি মিউজিকের সহযোগী সনি ডিএডিসির শুভেচ্ছাদূত নির্বাচিত হওয়ার ছয় মাস পর এসেছে তাশফীর গান। ‘সুর’ শিরোনামের এই গানের প্রকাশনা উপলক্ষে ঢাকার একটি পাঁচতারকা হোটেলে অনুষ্ঠান আয়োজন করে বাংলাদেশে সনি ডিএডিসির বিপণন ও পরিবেশনা অংশীদার ক্রেইন্স লিমিটেড।

তাশফীকে শুভেচ্ছা জানাতে আসেন মাইলস ব্যান্ডের হামিন আহমেদ, গায়ক ও সংগীত পরিচালক বাপ্পা মজুমদার, শিল্পী আলিফ আলাউদ্দিন, ফারশিদ আলম প্রমুখ।

হামিন আহমেদ বলেন, ‘কিছু গান শুনে আমাকে বলতেই হচ্ছে, তাশফী অসাধারণ। সুর গানটা শুনলাম। এটা তার মৌলিক গান। অসাধারণ গান। সে অনেক দূর যাবে।’

বাপ্পা মজুমদার বলেন, ‘তাশফীর গাওয়া আমি বরাবরই পছন্দ করি। আমি নিশ্চিত, তাঁর নতুন গানটিও অনেক ভালো হবে। তাশফীকে নিয়ে আমরা গর্ব করি। তুমি অনেক ভালো ভালো গান করো এবং এই গানগুলো যেন মানুষের মাঝে ছড়িয়ে যায়।’

তাশফী বলেন, ‘আমাকে সবাই জ্যাজ ঘরানার গানে বেশি পেয়েছে। এবার সেই ঘরানা থেকে বের হয়ে এসেছি। বাংলা গান গাইছি। গাইতে গিয়ে মনে হলো খুব সহজ না। এই গানটা কিন্তু এমন, যেখানে কিছুটা জ্যাজ, কিছুটা ওয়েস্টার্ন, কিছুটা পপ—বলতে পারেন পশ্চিমা গানের সঙ্গে দেশের গানের অন্য রকম একটা মেলবন্ধন।’

ক্রেইন্স লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাবেত খান ও প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা কাজী ফয়সাল আহমেদ। সনি ডিএডিসিকে দেশের শিল্পীদের জন্য স্থানীয় ও বিশ্বব্যাপী সংগীত পরিবেশনার একটি প্ল্যাটফর্ম বলছে প্রতিষ্ঠানটি।

Share:

Leave a Reply